spot_img
শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
spot_img

স্টকহোম সিনড্রোম কি, কেনো হয়

spot_img

স্টকহোম সিনড্রোম কি, কেনো হয়

অপহরণকারীরা বন্দিদের সাথে মানবিক আচরণ করলে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে এই রোগ দেখা দেয়
এই রোগে আক্রান্তদের বিভ্রান্তি, বিষণ্ণতা, আতঙ্ক, দুঃস্বপ্ন এবং অনিদ্রা জাতীয় সমস্যা দেখা দেয়

অনলাইন ডেস্ক

পৃথিবীতে সবচেয়ে বিচিত্র প্রাণী হচ্ছে মানুষ। বাহ্যিক আচরণের ভিন্নতার চেয়ে মানুষভেদে মানসিক অবস্থার বৈচিত্র সবচেয়ে বেশী। একজন মানুষের মনে নানারকম আবেগ, অনুভূতি কাজ করে। তেমন-ই একটি মানসিক বৈচিত্রতা হলো স্টকহোম সিনড্রোম।

যুদ্ধের মধ্যেও ২০২২ সালে আয় বেড়েছে জেলেনস্কিরযুদ্ধের মধ্যেও ২০২২ সালে আয় বেড়েছে জেলেনস্কির

স্টকহোম সিনড্রোম কি

স্টকহোম সিনড্রোম সাধারণত পণবন্দী বা জিম্মিদের মধ্যকার একটি মানসিক অবস্থা। যার দরুন পণবন্দীরা তাদের অপহরণকারীদের প্রতি আনুগত্য ও আবেগপ্রবণ টান অনুভব করে।

১৯৭৩ সালে সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে সংঘটিত এক ব্যাংক ডাকাতির ঘটনার সময় ৬ দিন ধরে জিম্মি হয়ে থাকা ব্যক্তিরা তাদের আটককারী ডাকাতদের প্রতি দূর্বলতা প্রকাশ করেছিল – এই ঘটনার পর থেকেই এ ধরনের আচরণকে স্টকহোম সিনড্রোম বলা হয়ে থাকে।

একই অবস্থা ঘটতে পারে স্ত্রী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন, এমনকি ধর্ষণের ক্ষেত্রেও।

স্টকহোম সিনড্রোমের লক্ষণ

স্টকহোম সিন্ড্রোমের লক্ষণগুলির মধ্যে বিভ্রান্তি, বিষণ্ণতা, পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস, আতঙ্ক, দুঃস্বপ্ন এবং অনিদ্রা থাকতে পারে। এসব আচরণ মূলত অপব্যবহারকারীর আচরণ ও ব্যবহারের ভয়ে হতে পারে।

তবে অনেক সময় অপরাধীরা তাদের জিম্মিদের কারসাজি করার জন্য অনুগ্রহ প্রদর্শনের মতো কৌশল ব্যবহার করে থাকে যার ফলে অপব্যবহারকারীর প্রতি বন্দীদের বিভ্রান্তিকর অনুভূতি তৈরি হয়।

জন্মদিনে অনলাইনে অর্ডার করা কেক খেয়ে শিশুর মৃত্যুজন্মদিনে অনলাইনে অর্ডার করা কেক খেয়ে শিশুর মৃত্যু

কেন হয় স্টকহোম সিন্ড্রোম

সাধারণত দীর্ঘ দিন ধরে চলমান নারী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন, ধর্মীয় কারণে আটক রাখা বা যুদ্ধবন্দি ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে, নিকটাত্মীয় দ্বারা ধর্ষণের স্বীকার, কোনো ব্যক্তির ব্যক্তিসত্ত্বা ধ্বংসকারী কাজে জড়িত থাকা অন্য কোনো ব্যক্তির ক্ষেত্রেই স্টকহোম সিনড্রোম বেশী প্রতীয়মান হয় বলে মত দিয়েছেন গবেষকরা।

যদিও অনেক গবেষক, মনোবিজ্ঞানী এবং ক্রিমিনোলজিস্ট এর পেছনে যথাযথ কারন অনুসন্ধানে করার চেষ্টা করেছেন এবং তারা এ বিষয়ে বেশ কয়েকটি সম্ভাব্য কারন বের করেছেন।

বন্দিদশায় অপহূত ব্যক্তিদের মনে এমন ভাবনার উদ্রেক হয় যে, আইন প্রয়োগকারী কর্মীরা তাদের উদ্ধারকাজে যথেষ্ঠ তৎপরতা চালাচ্ছে না। আবার এর বিপরীতে অপহরণকারীরা তাদের সাথে মানবিক আচরণ করছে। এমন মুখোমুখি ইন্টারঅ্যাকশনের কারনেই স্টকহোম সিন্ড্রোম বিকশিত হতে পারে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে স্টকহোম সিন্ড্রোম সমস্ত জিম্মি বা ব্যক্তিদের প্রভাবিত করে না। ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) ১২০০ টিরও বেশি জিম্মি ঘটনার সমীক্ষায় দেখা গেছে যে ৯২% জিম্মি স্টকহোম সিন্ড্রোম বিকাশ করেনি।

এফবিআই গবেষকরা বলছেন যে সিন্ড্রোমের বিকাশের জন্য তিনটি কারণ প্রয়োজন:

১. সংকটজনক পরিস্থিতি কয়েকদিন বা তারও বেশি সময় ধরে চলমান থাকে।

২. জিম্মিকারীরা জিম্মিদের সঙ্গে যোগাযোগ বজায় রাখে বা জিম্মিদের আলাদা ঘরে রাখা হয় না।

৩. জিম্মিকারীরা জিম্মিদের প্রতি দয়া প্রদর্শন করে বা অন্তত তাদের ক্ষতি করা থেকে বিরত থাকে। অপহরণকারীদের দ্বারা নির্যাতিত জিম্মিরা সাধারণত তাদের প্রতি রাগ অনুভব করে এবং সাধারণত সিন্ড্রোম বিকাশ করে না।

চিকিৎসা

স্টকহোম সিন্ড্রোমের চিকিৎসা পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিসঅর্ডার (PTSD) বা দুর্ঘটনা পরবর্তী মানসিক ব্যাধির মতোই। এক্ষেত্রে স্বল্পমেয়াদী লক্ষণ ও ঘুমের ব্যাঘাতের জন্য ওষুধ এবং দীর্ঘমেয়াদী লক্ষণগুলির জন্য সাইকোথেরাপি দেয়া হয়ে থাকে।

spot_img

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ

spot_img
spot_img