spot_img
রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪
spot_img

সোনারগাঁওয়ে স্ত্রীকে হাত-পা বেঁধে লোহার হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

spot_img

সোনারগাঁওয়ে স্ত্রীকে হাত-পা বেঁধে লোহার হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

আরাফাত হোসেন সিফাত:

তিন সন্তানের জননী আঁখি আক্তারকে (৩২), শিকল দিয়ে হাত-পা বেঁধে লোহার হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী সাইদুল ইসলাম (৩৬)। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০ টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আঁখি আক্তারের দুই ছেলে অর্ণব (১২) ও সিয়ামের (১০) সামনে হাত-পা বেঁধে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। ঘাতক স্বামী সাইদুল ইসলাম উপজেলার চেঙ্গাকান্দি গ্রামের নুরুল হুদা ওরফে সুধার ছেলে এবং নিহত আঁখি আক্তার পাশর্^বর্তী পিরোজপুর গ্রামের ইব্রাহিম প্রধানের কন্যা। এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার রাতে মাদকাসক্ত স্বামী সাইদুলের সঙ্গে স্ত্রী কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রীর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে গৃহবধূকে লোহার শিকল দিয়ে হাত-পা বেঁধে হাতুড়ি দিয়ে পেটাতে থাকে। এ সময় শিশু অর্ণব ও সিয়ামের ডাক-চিৎকারের শব্দ শুয়ে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে ঘাতক সাইদুল ঘর থেকে বের হয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী মুমূর্ষ অবস্থায় আঁখি আক্তারের হাত-পায়ের বাঁধন খুলে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। প্রায় ১৫ বছর আগে সাইদুলের সঙ্গে নিহত আঁখি আক্তারের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের দুই ছেলে ও চার মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই সাঈদুল সন্দেহ করে নানা অজুহাতে তাকে মারধর করত। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাতে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় স্বামী। এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাবুব আলম সুমন বলেন, হত্যার ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার নারায়ণগঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করতে পুলিশি অভিযান চলছে।

spot_img

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ

spot_img
spot_img