spot_img
শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
spot_img

আ.লীগের বিদ্রোহীদের সাধারণ ক্ষমার সিদ্ধান্তে সোনারগাঁয়ে কালামের পক্ষে তৃণমূলের মিষ্টি বিতরণ

spot_img

আ.লীগের বিদ্রোহীদের সাধারণ ক্ষমার সিদ্ধান্তে সোনারগাঁয়ে কালামের পক্ষে তৃণমূলের মিষ্টি বিতরণ

লাইভ সোনারগাঁও ২৪ ডেস্ক:

আ.লীগের বিদ্রোহীদের সাধারণ ক্ষমার সিদ্ধান্তে সোনারগাঁওয়ে আওয়ামীলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান কালামের পক্ষে তৃণমূল নেতাকর্মীরা বিভিন্ন এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছেন।
রবিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আওয়ামীলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান কালামের পক্ষে সোনারগাঁওয়ের তৃণমূল নেতাকর্মীরা মোগরাপাড়া চৌরাস্তা, উপজেলা চত্বর, সনমান্দি, জামপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় দোয়া ও মাহফিল এবং মিষ্টি বিতরণ করেছেন।
জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচনে যারা বিদ্রোহী হয়ে অংশ নিয়েছিলেন তাদের সাধারণ ক্ষমা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। যারা ইতোমধ্যে দলের হাইকমান্ডের ক্ষমা চেয়েছেন, তাদের সাধারণ ক্ষমা করা হয়েছে।
শনিবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া সভায় আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের বাজেট পাশ করা হয়েছে।
এবারের সম্মেলনে খরচ হবে ৩ কোটি ১৩ লাখ টাকা। একই সঙ্গে জাতীয় সম্মেলনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। বৈঠকে উপস্থিত থাকা একাধিক সদস্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভায় সভাপতিত্ব করেন। প্রধানমন্ত্রীর সূচনা বক্তব্যের পর শুরু হয় মূল আলোচনা। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ বৈঠকে অধিকাংশ জাতীয় পরিষদের সদস্যই উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়েছে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনকে। সদস্য করা হয়েছে উপদেষ্টা পরিষদের দুই সদস্য ড. মসিউর রহমান খান ও সাহাবুদ্দিন চুপ্পুকে।
সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের বৈঠকে যারা বিভিন্ন সাংগঠনিক অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে আবেদন করেছেন, তাদের বিষয়টিও তোলা হয়। এদের মধ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচন, স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল, যারা ইতোমধ্যে দলের হাইকমান্ডের ক্ষমা চেয়েছেন, তাদের সাধারণ ক্ষমা করা হয়েছে। একই সঙ্গে যারা ক্ষমা চাইবেন তাদের বিষয়টিও বিবেচনায় নেবে আওয়ামী লীগ।
দলীয় সূত্র জানায়, বিদ্রোহীদের সাধারণ ক্ষমা করা হলেও তারা দলের স্বপদে ফিরতে পারবেন না। তারা সাধারণ সদস্য হয়ে থাকবেন। তবে ভবিষ্যতে তারা দলের যে কোনো পদ-পদবিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন।
এ প্রসঙ্গে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচন নিয়ে অনেক ধরনের ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। যাতে কোনো শক্তিই পরাজিত করতে না পারে। বিগত দিনে যারা দলের শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকান্ড করেছে, তাদের সাধারণ ক্ষমা করা হলো। তবে ভবিষ্যতে যেন এমন না হয় সেজন্য সতর্ক করা হলো। একবার ক্ষমা করব বলেই বারবার একই কাজ করব তা কিন্তু নয়।

 

 

spot_img

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ

spot_img
spot_img